Connect with us

ঢালিউড

ঈদে মুক্তি পেলো রেকর্ডসংখ্যক ১১ সিনেমা, কোনটি কতটি সিনেমাহলে

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

ঈদুল ফিতরে রেকর্ডসংখ্যক ১১টি নতুন সিনেমা মুক্তি পেলো। এগুলো হলো গিয়াসউদ্দিন সেলিমের ‘কাজলরেখা’, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘ওমর’, হিমেল আশরাফের ‘রাজকুমার’, মিশুক মনি পরিচালিত ‘দেয়ালের দেশ’, কামরুজ্জামান রোমানের ‘মোনা: জ্বীন-২’ ও ‘লিপস্টিক’, কাজী হায়াতের ‘গ্রিন কার্ড’, ছটকু আহমেদের ‘আহারে জীবন’, ফুয়াদ চৌধুরীর ‘মেঘনা কন্যা’, জসিম উদ্দিন জাকিরের ‘মায়া: দ্য লাভ’ এবং জাহিদ হোসেনের ‘সোনার চর’। কোনটি কত সিনেমাহলে চলছে জেনে নিন।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সূত্রে জানা যায়, এবারের ঈদের সিনেমা প্রদর্শনের জন্য প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে দেশের নিয়মিত ৬০-৭০টি সিনেমাহল। এছাড়া ঈদ উৎসবে খুলেছে গত ঈদুল আজহার পর থেকে বন্ধ থাকা বেশ কিছু সিনেমাহল। পাশাপাশি স্টার সিনেপ্লেক্স, ব্লকবাস্টার সিনেমাস, লায়ন সিনেমাস, চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিন, সিরাজগঞ্জের রুটস সিনেক্লাবসহ মাল্টিপ্লেক্সে পর্দার সংখ্যা ৩৫। মাল্টিপ্লেক্সের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শাখা স্টার সিনেপ্লেক্সের। এর সাতটি শাখায় ১৯টি পর্দা। সব মিলিয়ে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা ২০০ ছুঁই ছুঁই। দর্শকদের স্বস্তির জন্য সব সিনেমাহল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। কিছু সিনেমাহলে রয়েছে আলোকসজ্জা। সিনেমাপাড়া থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ঈদের সিনেমা নিয়ে জম্পেশ আলোচনা।

‘রাজকুমার’ সিনেমার পোস্টারে শাকিব খান (ছবি: ভার্সেটাইল মিডিয়া)

রাজকুমার (১২৭টি সিনেমাহল)
ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান অভিনীত হিমেল আশরাফের ‘রাজকুমার’ সিনেমাহলের সংখ্যায় অনেক এগিয়ে। ভার্সেটাইল মিডিয়ার প্রযোজনা ও পরিবেশনায় সব মাল্টিপ্লেক্সসহ দেশের ১২৭টি সিনেমাহলে দেখা যাচ্ছে এটি। এতে শাকিবের বিপরীতে বাংলাদেশের সিনেমায় নাম লিখিয়েছেন আমেরিকান তারকা কোর্টনি কফি। এছাড়া আছেন তারিক আনাম খান, এরফান মৃধা শিবলুসহ অনেকে। শাকিবের মায়ের চরিত্রে চমক মাহিয়া মাহি।

‘ওমর’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: সিনেমাওয়ালা)

ওমর (২১টি সিনেমাহল)
মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত ‘ওমর’ অ্যাকশন কাট এন্টারেটেইনমেন্টের পরিবেশনায় মাল্টিপ্লেক্সসহ মুক্তি পেয়েছে ২১টি সিনেমাহলে। এতে অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ, নাসিরউদ্দিন খান, শহীদুজ্জামান সেলিম, ফজলুর রহমান বাবু, এরফান মৃধা শিবলু, আবু হুরায়রা তানভীর, নাফিস আহমেদ, রোজি সিদ্দিকী, তানজিলা হক মাইশা, আইমন সিমলা। মাস্টার কমিউনিকেশন্সের ব্যানারে এটি প্রযোজনা করেছেন খোরশেদ আলম। প্রয়াত কথাসাহিত্যিক-নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদ ও চিত্রনায়ক-প্রযোজক মান্নাকে উৎসর্গ করা হয়েছে ‘ওমর’। সিনেমাটির চিত্রনাট্য লিখেছেন সিদ্দিক আহমেদ। চিত্রগ্রহণ করেছেন রাজু রাজ। শিল্প নির্দেশনায় সামুরাই মারুফ।

‘দেয়ালের দেশ’ সিনেমার পোস্টারে শরিফুল রাজ ও শবনম বুবলী (ছবি: মেট্রো সিনেমা ফিল্মওয়ার্কস)

দেয়ালের দেশ (১৩টি সিনেমাহল)
সরকারি অনুদান ও মেট্রো সিনেমা ফিল্মওয়ার্কস প্রযোজিত ‘দেয়ালের দেশ’ অভি কথাচিত্রের পরিবেশনায় মুক্তি পেয়েছে ১৩টি সিনেমাহলে। এতে প্রথমবার জুটি বেঁধেছেন শরিফুল রাজ ও শবনম বুবলী। এর কাহিনি, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় মিশুক মনি। এতে আরো অভিনয় করেছেন জিনাত শানু স্বাগতা, শাহাদাৎ হোসেন, আজিজুল হাকিম, সমাপ্তি মাসুক, সাবেরি আলম, এ কে আজাদ সেতু। আবহ সংগীতে ইমন চৌধুরী।

‘কাজলরেখা’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: বাঙাল ফিল্মস)

কাজলরেখা (১০টি সিনেমাহল)
গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত গীত নির্ভর সিনেমা ‘কাজলরেখা’ জাজ মাল্টিমিডিয়ার পরিবেশনায় মুক্তি পেয়েছে ঢাকার মাল্টিপ্লেক্স স্টার সিনেপ্লেক্স, ব্লকবাস্টার সিনেমাস, সিনেস্কোপ, লায়ন সিনেমাস ও চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিনে। সরকারি অনুদানে বাঙাল ফিল্মসের ব্যানারে নির্মিত সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন মন্দিরা চক্রবর্তী, সাদিয়া আয়মান, রাফিয়াত রশিদ মিথিলা, শরিফুল রাজ, খাইরুল বাসার, আজাদ আবুল কালাম, ইরেশ যাকের, সাহানা রহমান সুমি, গাউসুল আলম শাওন ও ইরফান সেলিম সুজয়।

‘মায়া: দ্য লাভ’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: ব্রাদার্স প্রোডাকশন হাউস)

মায়া: দ্য লাভ (৯টি সিনেমাহল)
জসিম উদ্দিন জাকিরের কাহিনি, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় ‘মায়া: দ্য লাভ’ মুক্তি পেয়েছে ৯টি সিনেমাহলে। এতে চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন সাইমন সাদিক, জিয়াউল রোশান ও আনিসুর রহমান মিলন। আলীনুর আশিক ভূঁইয়া প্রযোজিত সিনেমাটির পরিবেশনায় কাজ করছে ব্রাদার্স প্রোডাকশন হাউস।

‘লিপস্টিক’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: ক্লিওপেট্রা ফিল্মস)

লিপস্টিক (৭টি সিনেমাহল)
কামরুজ্জামান রোমান পরিচালিত আরেক সিনেমা ‘লিপস্টিক’ অভি কথাচিত্রের পরিবেশনায় মুক্তি পেয়েছে ৭টি সিনেমাহলে। এতে জুটি বেঁধেছেন আদর আজাদ ও পূজা চেরি। এছাড়া আছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, মিশা সওদাগর, ফারজানা ছবি, মনিরা মিঠু, নাদের চৌধুরী, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, এরফান মৃধা শিবলু, চিকন আলি, তনুশ্রী তন্বী, পারভেজ সুমন, এল কে সীমান্ত। এর কাহিনি ও সংলাপ লিখেছেন আব্দুল্লাহ জহির বাবু। প্রযোজনায় ক্লিওপেট্রা ফিল্মস।

‘মোনা: জ্বীন-২’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: জাজ মাল্টিমিডিয়া)

মোনা: জ্বীন-২ (৬টি সিনেমাহল)
জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজনা ও পরিবেশনায় ‘মোনা: জ্বীন-২’ মুক্তি পেয়েছে তিনটি মাল্টিপ্লেক্সে। এগুলো হলো স্টার সিনেপ্লেক্স, ব্লকবাস্টার সিনেমাস ও লায়ন সিনেমাস। কামরুজ্জামান রোমানের পরিচালনায় এতে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, দীপা খন্দকার, কাজী নওশাবা আহমেদ, আরিয়ানা জামান, সামিনা বাশার, সাজ্জাদ হোসেন, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, রেবেকা, শেহজাদ ওমর, শামীম, সাদিয়া মিম ও সুপ্রভাত। অতিথি চরিত্রে আছেন প্রয়াত অভিনেতা আহমেদ রুবেল। তাকেই সিনেমাটি উৎসর্গ করা হয়েছে।

‘মেঘনা কন্যা’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: আনোয়ার আজাদ ফিল্মস)

মেঘনা কন্যা (৫টি সিনেমাহল)
ফুয়াদ চৌধুরীর পরিচালনা ও অভি কথাচিত্রের পরিবেশনায় ৫টি মাল্টিপ্লেক্সে মুক্তি পেয়েছে। এতে অভিনয় করেছেন কাজী নওশাবা আহমেদ, সেমন্তী সৌমি, ফজলুর রহমান বাবু, শতাব্দী ওয়াদুদ, মোহাম্মদ বারী, জয়শ্রী কর জয়া, সানজিদা মিলা, সাইকা আহমেদ, সাজ্জাদ হোসাইন, আমিরুল ইসলাম, শেখ স্বপ্না, উপমা। সরকারি অনুদানে এটি প্রযোজনা করেছে আনোয়ার আজাদ ফিল্মস ও এস জে মোশনস পিকচার্স।

‘গ্রিন কার্ড’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: কাজী হায়াৎ ফিল্মস)

গ্রিন কার্ড (৩টি সিনেমাহল)
কাজী হায়াৎ ও রওশন আরা নীপা পরিচালিত ‘গ্রিন কার্ড’ জাজ মাল্টিমিডিয়ার পরিবেশনায় মুক্তি পেয়েছে ৩টি সিনেমাহলে। এর পুরো শুটিং হয়েছে আমেরিকায়। এতে অভিনয় করেছেন কাজী মারুফ।

‘আহারে জীবন’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: ঠিকানা চলচ্চিত্র)

আহারে জীবন (১টি সিনেমাহল)
চিত্রনায়ক ফেরদৌস ও চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা জুটির ‘আহারে জীবন’ ঠিকানা চলচ্চিত্রের প্রযোজনা ও কিবরিয়া ফিল্মসের পরিবেশনায় মুক্তি পেয়েছে শুধু মাল্টিপ্লেক্সে। এর কাহিনি, চিত্রনাট্য, সংলাপ ও পরিচালনায় ছটকু আহমেদ। সরকারি অনুদানে নির্মিত সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন সুচরিতা, মিশা সওদাগর, কাজী হায়াৎ, তুষার খান, জয় চৌধুরী, মৌমিতা মৌ, মারুফ আকিব, অহনা, শাহনূর, আনোয়ার সিরাজী, রেবেকা, শিমু খান, আরিয়ান আরিশ।

‘সোনার চর’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: এক্সেল ফিল্মস)

সোনার চর
এক্সেল ফিল্মসের প্রযোজনা ও অভি কথাচিত্রের পরিবেশনায় মুক্তি পেয়েছে ‘সোনার চর’। জাহাঙ্গীর সিকদার প্রযোজিত ও জাহিদ হোসেন পরিচালিত সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন মৌসুমী, জায়েদ খান, ওমর সানি, স্নিগ্ধা, শহীদুজ্জামান সেলিম।

ঢালিউড

জোড়া সিনেমা নিয়ে ফিরছেন আফরান নিশো

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

আফরান নিশো (ছবি: ফেসবুক)

‘সুড়ঙ্গ’ পেরিয়ে ফিরছেন অভিনেতা আফরান নিশো। নতুন দুটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তিনি। দুটিতেই প্রধান চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। তবে পরিচালক ও ছবি দুটির নাম এখনো জানা যায়নি। শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে এসব ঘোষণা আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

নতুন সিনেমা দুটি প্রযোজনা করবে এসভিএফ আলফা-আই এন্টারটেইনমেন্ট। ভারতীয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস (এসভিএফ) ও ঢাকার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আলফা-আই এন্টারটেইনমেন্ট লিমিটেডের যৌথ উদ্যোগে গঠিত হয়েছে এসভিএফ আলফা-আই এন্টারটেইনমেন্ট লিমিটেড। এসভিএফ আলফা-আই এন্টারটেইনমেন্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার শাকিল ও এসভিএফ-এর চেয়ারম্যান মহেন্দ্র সোনি।

২০২৩ সালে ঈদুল আজহায় রায়হান রাফী পরিচালিত ‘সুড়ঙ্গ’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হয় আফরান নিশোর। এতে তার অভিনয় প্রশংসা কুড়িয়েছে। এরপর থেকে তার নতুন কাজের ব্যাপারে কৌতূহল ছিলো ভক্ত-দর্শকদের। অবশেষে বড় পর্দায় ফেরার সুখবর দিলেন তিনি।

পড়া চালিয়ে যান

ঢালিউড

‘তুফান’ টিজারে শাকিবের হুংকার

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

‘তুফান’ সিনেমার টিজারে শাকিব খান (ছবি: চরকি)

ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানের আলোচিত সিনেমা ‘তুফান’-এর টিজার প্রকাশ্যে এলো। রায়হান রাফীর পরিচালনায় এতে অপ্রতিরোধ্য গ্যাংস্টারের আমেজে দেখা গেছে তাকে। বিভিন্ন অ্যাকশন দৃশ্যে তার লুক ও মেজাজ আভাস দিচ্ছে, তুফান বয়ে যাবে সিনেমাহলে!

১ মিনিট ২৮ সেকেন্ডের টিজারের শুরুতে শাকিব বলেন, ‌‘পূর্বের কথা মোতাবেক, এখন থেকে পুরো দেশকে তুফানের হাতে তুলিয়া দেবো। সে যা চাইবে পাইবে, যা করিতে চাইবে করিবে। তাহাকে কোনো কিছুতেই বাধা দেয়ার এখতিয়ার কেউই রাখিতে পারিবে না। আর এর ব্যত্যয় ঘটিলে…।’ এরপরই শুরু হয় তার আগ্রাসী কর্মকাণ্ড।

‘তুফান’ সিনেমার টিজারে শাকিব খান (ছবি: চরকি)

টিজারে শেষ দৃশ্যের আগে অন্যমাত্রা নিয়ে হাজির হন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। তিনি উপহাস মোড়ানো হাসি দিয়ে বলেন, ‘তুফান খুব ভয় পাইছিরে।’ এরপর বাথটাবে পানিতে বসে থাকা শাকিব হুংকার ছাড়েন।

‘তুফান’ সিনেমার টিজারে চঞ্চল চৌধুরী (ছবি: চরকি)

গতকাল (৭ মে) বিকেলে সিনেমাটির তিন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আলফা আই, চরকি ও এসভিএফ-এর সোশ্যাল মিডিয়া পেজে ও ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হয় টিজার।

টিজারে ধুন্ধুমার অ্যাকশন দৃশ্যের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে টাইটেল গান। এর কথা এমন– ‘প্রলয়ের তুফান, আসছে এ তুফান, প্রলয়ের তুফান, থামাও এ তুফান’। এটি গেয়েছেন আরিফ রহমান জয়। তার সঙ্গে সহ-কণ্ঠ দিয়েছেন সাম্যব্রত দৃপ্ত। র‍্যাপ গেয়েছেন র‍্যাপস্টা দাদু। এর কথা লিখেছেন তাহসান শুভ, সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন নাভেদ পারভেজ।

টিজার প্রসঙ্গে পরিচালক রায়হান রাফী বলেন, “বাংলা সিনেমাকে বিশ্ব দরবারে নতুনভাবে চেনাবে ‘তুফান’। অনেক সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি পরিবর্তন করে। ‘তুফান’ তেমন একটি সিনেমা হতে যাচ্ছে। বাংলা সিনেমার মানদণ্ড অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে। বলা যায়, ‘তুফান’ আমার জীবনের একটি স্বপ্নের প্রকল্প। শাকিব ভাইকে এই সিনেমায় পাওয়া আশীর্বাদ।”

‘তুফান’ সিনেমার টিজারে শাকিব খান (ছবি: চরকি)

‘তুফান’ দর্শকের মধ্যে ঝড় তুলবে বলে আশাবাদী এসভিএফ-এর পরিচালক ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা মহেন্দ্র সোনি, আলফা-আই স্টুডিওসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার শাকিল এবং চরকির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেদওয়ান রনি। তিনজনই জানিয়েছেন, টিজার প্রকাশের পর দারুণ সাড়া মিলছে।

আসন্ন ঈদুল আজহায় সিনেমাহলে মুক্তি পাবে ‘তুফান’। এতে শাকিব ও চঞ্চলের পাশাপাশি অভিনয় করেছেন মিমি চক্রবর্তী, মাসুমা রহমান নাবিলাসহ অনেকেই।

পড়া চালিয়ে যান

ঢালিউড

‘ফাতিমা’ সিনেমাহলে কবে আসছে জানালেন ফারিণ

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

তাসনিয়া ফারিণ (ছবি: ফেসবুক)

বাংলাদেশের বড় পর্দায় অভিষেক হচ্ছে অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণের। তার নতুন সিনেমা ‘ফাতিমা’ আগামী ২৪ মে সিনেমাহলে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এতে নাম ভূমিকায় দেখা যাবে তাকে।

গতকাল (৫ মে) সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ফাতিমা’র পোস্টার শেয়ার দিয়ে ফারিণ লিখেছেন, “আসছে দুই সময়ের দুই সংগ্রামের আখ্যান ‘ফাতিমা’। দেখুন আগামী ২৪ মে থেকে আপনার কাছের সিনেমা হলে!”

‘ফাতিমা’র পোস্টারে তাসনিয়া ফারিণ (ছবি: আউটকাস্ট ফিল্মস)

পোস্টারে দেখা যাচ্ছে, তাসনিয়া ফারিণ একদৃষ্টিতে একদিকে তাকিয়ে আছেন। এতে ১৯৭১ ও ২০২৩ সাল উল্লেখ রয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের সময়কার ও ২০২৩ সালের দুটি পৃথক সময়ের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে সিনেমাটি। পোস্টারের নিচের অংশে গরুর গাড়িতে চড়ে ও পায়ে হেঁটে অনেককে আশ্রয়ের খোঁজে যেতে দেখা যাচ্ছে।

‘ফাতিমা’য় অসাধারণ অভিনয়ের জন্য ইরানের ৪২তম ফজর আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে পুরস্কার পেয়েছেন তাসনিয়া ফারিণ। ইস্টার্ন ভিস্তা শাখায় ক্রিস্টাল সিমোর্গ স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে তাকে।

তাসনিয়া ফারিণ (ছবি: ফেসবুক)

ইরানের পর গত বছর অরল্যান্ডো ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এবং ইন্ডি গ্যাদারিং আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের অফিসিয়াল সিলেকশনে স্থান পায় ‘ফাতিমা’।

‘ফাতিমা’য় তাসনিয়া ফারিণ ছাড়াও অভিনয় করেছেন ইয়াশ রোহান, সংগীতশিল্পী পান্থ কানাই, তারিক আনাম খান, মানস বন্দ্যোপাধ্যায়, আয়েশা মনিকা, গাউসুল আলম শাওন।

আউটকাস্ট ফিল্মস প্রযোজিত ‘ফাতিমা’র নাম শুরুতে ছিলো ‘দাহকাল’। ২০১৭ সালে এর শুটিং শুরু হলেও অর্থনৈতিক জটিলতার কারণে কাজ শেষ করে সাত বছর লেগেছে। চিত্রগ্রহণ করেছেন তুহিন তমিজুল।

তাসনিয়া ফারিণ (ছবি: ইয়াকুব)

সিনেমাটি প্রযোজনা ও পরিচালনা করেছেন ধ্রুব হাসান। গল্পটি তারই। তিনি ও আদনান হাবিব চিত্রনাট্য লিখেছেন। তারাই সম্পাদনা ও নির্বাহী প্রযোজকের দায়িত্ব পালন করেছেন। সহ-প্রযোজক আরমান কাদরী, আরজু মানারা বেগম, শামসুর রাহমান আলভী ও তুনাজ্জিনা চৌধুরী পুনম। শিল্প নির্দেশনায় তারেক বাবলু, শিহাব নুরুন নবী ও উত্তম গুহ। শব্দসজ্জা করেছেন শৈব তালুকদার। পোশাক পরিকল্পনায় জুনায়েদ বোগদাদি জিমি ও এদিলা ফারিদ তুরিন।

গানের সুর ও সংগীত এবং আবহ সংগীত পরিচালনা করেছেন পাভেল আরীন। শারমিন সুলতানা সুমি লেখার পাশাপাশি একটি কণ্ঠ দিয়েছেন। এছাড়া রয়েছে সোমনূর মনির কোনালের গাওয়া একটি গান।

পশ্চিমবঙ্গের ‘আরো এক পৃথিবী’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হয় তাসনিয়া ফারিণের। এটি মুক্তি পায় ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে।

পড়া চালিয়ে যান

সিনেমাওয়ালা প্রচ্ছদ