Connect with us

ঢালিউড

‘দামাল’ ২২ প্রেক্ষাগৃহে, দর্শকরা দেখবে দলেবলে

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

দামাল

‘দামাল’ সিনেমার অভিনয়শিল্পী (বাঁ থেকে) সুমিত সেনগুপ্ত, শরিফুল আলম রাজ, বিদ্যা সিনহা মিম, সিয়াম আহমেদ ও শাহনাজ সুমি (ছবি: ফেসবুক)

‘দামাল’ কলাকুশলীরা ছুটছেন তো ছুটছেন! অভিনব কিছু প্রচারণার নজির সৃষ্টি করেছেন তারা। বহুল প্রতীক্ষিত এই সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে আজ (২৮ অক্টোবর)। সবাইকে এটি দলেবলে দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন পরিচালক রায়হান রাফী ও তার কলাকুশলীরা। ইতোমধ্যে এর প্রতি দর্শকদের ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

ইমপ্রেস টেলিফিল্মের পরিবেশনায় ‘দামাল’ আজ থেকে উপভোগ করা যাবে ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্সের বসুন্ধরা সিটি (পান্থপথ), সনি স্কয়ার (মিরপুর), সীমান্ত সম্ভার (ধানমন্ডি), এসকেএস টাওয়ার (মহাখালী), সামরিক জাদুঘর (বিজয় সরণি), ব্লকবাস্টার সিনেমাস (যমুনা ফিউচার পার্ক), মধুমিতা, শ্যামলী, সেনা অডিটোরিয়াম (সাভার ক্যান্টনমেন্ট), লায়ন সিনেমাস (কেরানীগঞ্জ), নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ, যশোরের মণিহার, সিলেটের গ্র্যান্ড সিলেট সিনেপ্লেক্স, বগুড়ার মধুবন সিনেপ্লেক্স, চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিন এবং সুগন্ধা, ময়মনসিংহের ছায়াবাণী, রংপুরের শাপলা, খুলনার শঙ্খ এবং লিবার্টি, বগুড়ার মম-ইন, সিরাজগঞ্জের রুটস সিনেক্লাবে।

দামাল

‘দামাল’ সিনেমার পোস্টার (ছবি: ইমপ্রেস টেলিফিল্ম)

১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের সত্যি ঘটনায় অনুপ্রাণিত ‘দামাল’ সিনেমার চিত্রনাট্য। তাই প্রচারণার জন্য প্রীতি ফুটবল ম্যাচ আয়োজন করে সিনেমাটির সহযোগী টিভি চ্যানেল টি-স্পোর্টস ও ফুটবল ক্লাব বসুন্ধরা কিংস। কয়েকদিন আগে ঢাকার বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় ‘দামাল’ সিনেমার অভিনয়শিল্পী এবং ছোট ও বড় পর্দার তারকারা প্রীতি ম্যাচে পেশাদার খেলোয়াড়দের সঙ্গে ফুটবল খেলেছেন।

গত ১০ অক্টোবর ঢাকার পান্থপথে বসুন্ধরা সিটির একটি রেস্তোরাঁয় ভিন্ন আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় ‘দামাল’ সিনেমার সংবাদ সম্মেলন ও পোস্টার উন্মোচন। এখানে কৃত্রিম ঘাস ও ছোট গোলবারে ফুটবল নিয়ে মেতে ওঠেন সংশ্লিষ্টরা। এছাড়া ফুটবল নিয়ে হুটহাট যেখানে সেখানে সদলবলে ঢুকে চমকে দিয়েছে ‘দামাল’ টিম। কখনো টিভি টক শোর মাঝখানে, কখনোবা পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে কিংবা শপিং কমপ্লেক্সের সামনে তারা স্লোগানে মুখর হয়েছেন। স্টার সিনেপ্লেক্সের ১৮ বছর পূর্তির কেক কাটার আয়োজনেও দেখা গেছে তাদের।

‘দামাল’ সিনেমার দৃশ্য

‘দামাল’ সিনেমার দৃশ্য

‘দামাল’ সিনেমার ফুটবল দলের অধিনায়ক মুন্না চরিত্রে অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ। ‘পরাণ’ ও ‘হাওয়া’র পর চলতি বছর এটি তার তৃতীয় সিনেমা। আগের দুটির মতো এবারও বড়সড় সাফল্য পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী তিনি।

গল্পে স্ট্রাইকার দুর্জয়ের ভূমিকায় আছেন সিয়াম আহমেদ। চলতি বছর এটি তার চতুর্থ সিনেমা। এর আগে মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত ‘শান’, ‘পাপ পুণ্য’ এবং ‘অপারেশন সুন্দরবন’।

‘দামাল’ সিনেমার দৃশ্য

‘দামাল’ সিনেমার দৃশ্য

শরিফুল রাজ তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় সাফল্য পেয়েছেন ‘পরাণ’ সিনেমায়। আর সিয়াম বড় পর্দায় আত্মপ্রকাশ করেছেন রায়হান রাফীর পরিচালনায় ‘পোড়ামন ২’ সিনেমায়। এরপর ‘দহন’ সিনেমায় তারা একসঙ্গে কাজ করেন। তবে শরিফুল রাজ ও সিয়াম এবারই প্রথম একসঙ্গে অভিনয় করলেন।

‘পরাণ’-এর পর ‘দামাল’ সিনেমায় শরিফুল রাজ ও বিদ্যা সিনহা মিম আবার জুটি বেঁধেছেন। এতে আরো অভিনয় করেছেন সুমিত সেনগুপ্ত, শাহনাজ সুমি, ইন্তেখাব দিনার, রাশেদ মামুন অপু, একে আজাদ সেতু, সাঈদ বাবু, নাসির উদ্দিন খান, আহসান হাবিব নাসিম, সামিয়া অথৈ, পূজা আনিয়েস ক্রুজ, সারওয়াত আজাদ বৃষ্টি, কায়েস চৌধুরী, সমু চৌধুরী, মিলি বাশার, নাজিবা বাশার, ফরহাদ লিমন, টাইগার রবি, আজম খান, দাউদ নূর, ইন্দ্রানী ঘাতক, বৈদ্যনাথ সাহা, কামরুজ্জামান তপু, শেখ মাহবুবুর রহমান, হামিদুর রহমান ও সৈয়দ নাজমুস সাকিব।

দামাল

‘দামাল’ সিনেমার দৃশ্যে শরিফুল রাজ ও বিদ্যা সিনহা মিম (ছবি: ইমপ্রেস টেলিফিল্ম)

‘দামাল’ গল্পটি লিখেছেন ফরিদুর রেজা সাগর। নিজের প্রতিষ্ঠান ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেডের ব্যানারে তিনিই সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন। রায়হান রাফীর সঙ্গে মিলে চিত্রনাট্য তৈরি করেছেন নাজিম উদ্দৌলা।

সিনেমাটিতে রয়েছে ‘ঘুরঘুর পোকা’, ‘আমি দুর্জয়’ ও ‘মন পোষ মানে না’ শিরোনামের তিনটি গান। এগুলো গেয়েছেন মমতাজ বেগম, প্রীতম হাসান, দিলশাদ নাহার কণা ও ইমরান মাহমুদুল। শব্দ প্রকৌশলী হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন রিপন নাথ। চিত্রগ্রহণে সুমন সরকার। সম্পাদনায় সামির আহমেদ। এছাড়া প্রচারণার অংশ হিসেবে সাজানো ‘দামাল দামাল’ শিরোনামের একটি গান গেয়েছেন সাকিব চৌধুরী ও ঐশী। সবক’টি লিখেছেন রাসেল মাহমুদ, সুর ও সংগীত পরিচালনায় আরাফাত মহসিন নিধি।

ঢালিউড

অবশেষে এলো ট্রেলার, শাকিব বললেন– ‘তুফান পোষ মানে না, পোষ মানায়’

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

‘তুফান’ সিনেমার ট্রেলারে শাকিব খান (ছবি: চরকি)

ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানের ‘তুফান’ সিনেমার বহুল প্রতীক্ষিত ট্রেলার এলো। বেশ কিছু সংলাপ, ধুন্ধুমার অ্যাকশন, রোমান্টিক মুহূর্ত ও গানের অংশবিশেষ দিয়ে সাজানো হয়েছে এটি।

গতকাল (১৫ জুন) রাতে ইউটিউবে চরকি ও এসভিএফ চ্যানেলে অবমুক্ত হয়েছে ২ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ট্রেলারটি। এর শুরুতে কিছু দৃশ্যের সঙ্গে নেপথ্যে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীর সংলাপ শোনা যায়, ‘তুফান মানুষ নয়, আবার তুফান পশুও নয়, তুফান যা হতে চেয়েছিলো, তাই হয়েছে। রাক্ষস!’

এরপর রয়েছে মিশা সওদাগরের একটি সংলাপ, ‘একটা ১৫ বছরের পোলা, দিনের আলোতে জবাই কইরা ফালাইছে, এই তুফান একদিন ডিস্ট্রিক্ট লেভেলে খেলবো।’ গল্পে তার চরিত্রের নাম বাসির। লোকটির কথার রেশ ধরে তুফান বলে, ‘কিন্তু বাসির ভাই জানতো না, আমি একদিন ন্যাশনাল লেভেলে খেলবো।’ ট্রেলারে তার আরেকটি আকর্ষণীয় সংলাপ হলো, ‘তুফান পোষ মানে না, পোষ মানায়।’

একটি দৃশ্যে দেখা গেছে সালাউদ্দিন লাভলুকে। তিনি প্রশ্ন করেন, ‘এই তুই কেডারে?’

আরেকটি দৃশ্যে ফজলুর রহমান বাবু জানতে চান, ‘কী চাও তুমি?’ উত্তরে তুফান বলে, ‘পুরা দেশ।’

‘তুফান’ সিনেমার ট্রেলারে শাকিব খান (ছবি: চরকি)

‘তুফান’ সিনেমায় শাকিবের বিপরীতে অভিনয় করেছেন মাসুমা রহমান নাবিলা ও পশ্চিমবঙ্গের তারকা মিমি চক্রবর্তী। তুফানে পরিণত হওয়ার আগে নাবিলার সঙ্গে তার প্রেম দেখা যাবে। আর গ্যাংস্টার কুখ্যাতির পর মিমির সঙ্গে রসায়ন তৈরি করেছেন তিনি।

সিআইডি আকরাম চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল। ট্রেলারের শুরুর মতো শেষ হয়েছে তার সংলাপে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে তিনি বলেন, ‘একটা যদি সুযোগ পাই, তুফানকে খেয়ে দেবো স্যার।’

গাজী রাকায়েতকে দেখা গেছে গল্পের সূত্রধরের ভূমিকায়। এছাড়া অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম।

ঈদুল আজহায় বড় পর্দায় ঝড় তুলতে আসছে রায়হান রাফী পরিচালিত ‘তুফান’। আন্তর্জাতিকভাবে এটি মুক্তি পাবে আগামী ২৮ জুন।

‘তুফান’ সিনেমার ট্রেলারে শাকিব খান (ছবি: চরকি)

ট্রেলারে দিলশাদ নাহার কনার গাওয়া ‘দুষ্টু কোকিলা’ শিরোনামের গানে মিমির ঝলমলে নাচের ঝলক দেখা গেছে। সিনেমাটির টাইটেল গান গেয়েছেন আরিফ রহমান জয়। এতে র‍্যাপ করেছেন রাপাস্তা দাদু। এর কথা লিখেছেন তাহসান শুভ, সুর ও সংগীত পরিচালনায় নাভেদ পারভেজ। আইটেম গান ‘লাগে উরাধুরা’ গেয়েছেন প্রীতম হাসান ও দেবশ্রী অন্তরা। এর কথা লিখেছেন শরিফ উদ্দিন ও রাসেল মাহমুদ। সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন রাজ্জাক দেওয়ান ও প্রীতম হাসান।

‘তুফান’ প্রযোজনা করেছে আলফা আই স্টুডিওস লিমিটেড। এর আন্তর্জাতিক পরিবেশক পশ্চিমবঙ্গের এসভিএফ এবং ডিজিটাল পার্টনার চরকি।

পড়া চালিয়ে যান

ঢালিউড

ঢাকায় এসে মিমি বললেন, ‘শাকিবের সঙ্গে অভিনয় করে জোশ লেগেছে’

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

(বাঁ থেকে) রেদওয়ান রনি, রায়হান রাফী, মিমি চক্রবর্তী, শাকিব খান, মাসুমা রহমান নাবিলা, চঞ্চল চৌধুরী ও শাহরিয়ার শাকিল (ছবি: চরকি)

ঈদুল আজহায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানের বহুল আলোচিত সিনেমা ‘তুফান’। এ উপলক্ষে গতকাল (১২ জুন) সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠানে হাজির হন তিনি ও অন্য কলাকুশলীরা। ওপার বাংলার অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী এই সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিতে ঢাকায় এসেছেন। মঞ্চে এস তিনি বলেন, ‘শাকিবের সঙ্গে অভিনয় করে আমার জোশ লেগেছে।’

এবারই প্রথম জুটি বেঁধেছেন শাকিব খান ও মিমি। এছাড়া আছেন ‘আয়নবাজি’ জুটি চঞ্চল চৌধুরী ও মাসুমা রহমান নাবিলা। চঞ্চল বলেন, ‘শাকিব খানের সঙ্গে পর্দা ভাগাভাগি করার ইচ্ছা ছিলো অনেকদিনের। অবশেষে সেটা পূরণ হয়েছে। আমাকে এই সিনেমায় যুক্ত করার জন্য নির্মাতা ও প্রযোজককে ধন্যবাদ।’

(বাঁ থেকে) রায়হান রাফী, রেদওয়ান রনি, মিমি চক্রবর্তী, শাকিব খান, মাসুমা রহমান নাবিলা, চঞ্চল চৌধুরী ও শাহরিয়ার শাকিল (ছবি: চরকি)

‘তুফান’-এর পরিচালক রায়হান রাফীর আশা, “এটি বাংলা সিনেমাকে বিশ্ব দরবারে নতুনভাবে চেনাবে। কিছু সিনেমা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বদলে দেয়। ‘তুফান’ তেমন একটি সিনেমা হতে যাচ্ছে। বাংলা সিনেমার মানদণ্ডকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারে এটি।”

মিমি চক্রবর্তী ও শাকিব খান (ছবি: চরকি)

সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন আলফা আই স্টুডিওস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার শাকিল। তিনিও ছিলেন মঞ্চে। এছাড়া ছিলেন ডিজিটাল পার্টনার চরকির সিইও রেদওয়ান রনি।

(বাঁ থেকে) মিমি চক্রবর্তী, শাকিব খান ও মাসুমা রহমান নাবিলা (ছবি: চরকি)

‘তুফান’কে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে দেশব্যাপী ঝড় উঠেছে। এর আইটেম গান ‘লাগে উরাধুরা’ ও টাইটেল গান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। দেশের প্রধান প্রধান মাল্টিপ্লেক্স ও বিভিন্ন প্রান্তের সিনেমাহল ‘তুফান’ প্রদর্শনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। কয়েকটি সিনেমাহলে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। সিনেমাটির ইন্টারন্যাশনাল ডিস্ট্রিবিউটর এসভিএফ।

পড়া চালিয়ে যান

ঢালিউড

সরকারি অনুদান পাচ্ছে ২০টি সিনেমা, তালিকায় নায়ক মান্নার স্ত্রী ও তরুণ নির্মাতারা

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

(বাঁয়ে) শেলী মান্না, (মাঝে ওপর-নিচে) রবিউল আলম রবি ও মো. তাওকীর ইসলাম, (ডানে ওপর-নিচে) সঞ্জয় সমদ্দার ও নিয়ামুল মুক্তা (ছবি: ফেসবুক)

২০২৩-২৪ অর্থবছরের আওতায় ২০টি সিনেমা নির্মাণের জন্য সরকারি অনুদান দেওয়া হচ্ছে। এরমধ্যে ১৬টির প্রযোজকরা ৭৫ লাখ টাকা করে পাচ্ছেন। বাকি ৪টি সিনেমার প্রযোজকদের জন্য ৫০ লাখ টাকা করে বরাদ্দ থাকছে। আজ (১২ জুন) এ বিষয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব সাইফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র অনুদান কমিটির সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে অনুদান প্রাপ্তদের তালিকা বেরিয়েছে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে- স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, মানবীয় মূল্যবোধসম্পন্ন জীবনমুখী, রুচিশীল ও শিল্পমানসমৃদ্ধ পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা নির্মাণে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা ও সহায়তা প্রদানের উদ্দেশ্যে অনুদান দেওয়া হচ্ছে।

পড়া চালিয়ে যান
Advertisement

সিনেমাওয়ালা প্রচ্ছদ