Connect with us

নাটক

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসে ‘আলো আমার আলো’

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

‘আলো আমার আলো’য় জ্যোতি সিনহা ও অপর্ণা বন্দনা (ছবি: তাহারা)

আলো নামের একটি পঙ্গু মেয়ের সত্যি গল্প নিয়ে তৈরি হলো ৪০ মিনিটের মুক্তদৈর্ঘ্য কাহিনিচিত্র ‘আলো আমার আলো’। মানবিকতার টানাপড়েন নিয়ে এর গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন এবং পরিচালনা করেছেন শুভাশিস সিনহা। আজ বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসে বঙ্গ ড্রামার ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পাবে এটি।

‘আলো আমার আলো’র গল্পে দেখা যাবে, শহরজীবনে সম্পর্ক ও চাকরিসহ নিজের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেয় রূপা। এমন সময় তার মেসেঞ্জারে আসে আলোর টেক্সট। সে জানায়, তার দুঃখের কাছে পৃথিবীর অন্য সব দুঃখ তুচ্ছ। রূপা ও আলোর মধ্যে ভার্চুয়ালি নিবিড় সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আলোর করুণ গল্প শুনে রূপা ভুলে যায় নিজের যন্ত্রণা। তার কাছে তুচ্ছ মনে হয় নিজের সংকট। সে আলোর পাশে দাঁড়ায় ভার্চুয়ালি।

‘আলো আমার আলো’য় জ্যোতি সিনহা ও অপর্ণা বন্দনা (ছবি: তাহারা)

একদিন রূপা হাজির হয় আলোর সামনে। আলোকে সে আবৃত্তি শেখায়, বেড়াতে নিয়ে যায়। দুইজন মিলে জীবনে মুক্তির স্বাদ খুঁজে পায়। কিন্তু এরমধ্যে রূপার সংকটগুলো বাধা হয়ে দাঁড়ায়। শেষ পর্যন্ত রূপা কি পারবে আলোর জীবনে প্রকৃত সহযাত্রী হয়ে থাকতে?

‘আলো আমার আলো’য় জ্যোতি সিনহা ও অপর্ণা বন্দনা (ছবি: তাহারা)

কাহিনিচিত্রটিতে রূপা চরিত্রে অভিনয় করেছেন জ্যোতি সিনহা। আলোর ভূমিকায় আছেন অপর্ণা বন্দনা। মূলত বন্দনার সত্যি গল্পই তুলে ধরা হয়েছে ‘আলো আমার আলো’য়। এতে আরো অভিনয় করেছেন মণি বড়ুয়া, বিলকিস বেগম, বিধান সিংহ, আমিনা ইসলাম মৌ, ড. সৌমিত্র সিংহ, শ্রাবন্তী সিনহা, সুজয়া সিনহা, অ্যানি সিনহা, সুশ্রী সিনহাসহ অনেকে। এতে গান গেয়েছেন শর্মিলা সিনহা ও ভারতের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী মৌসুমী ভৌমিক। সংগীত পরিচালনায় ড. সাইম রানা।

নাটক

গানে বাজিমাত করার পর শ্রমিক দিবসের নাটকে ফারিণ

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

‘জেনি’ নাটকের দৃশ্যে তাসনিয়া ফারিণ (ছবি: সিনেমাওয়ালা)

ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’তে সংগীতশিল্পী তাহসান খানের সঙ্গে অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণের গাওয়া ‘রঙে রঙে রঙিন হবো’ দারুণ শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে। এটি এখন ইউটিউবে ডেইলি টপ মিউজিক ভিডিওস চার্টে ৩৯ নম্বরে আছে। গায়িকা হিসেবে অভিষেকেই বাজিমাত করেছেন এই তারকা। এবার আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসের বিশেষ নাটকে দর্শকদের সামনে হাজির হলেন তিনি।

তাসনিয়া ফারিণের নতুন নাটকের নাম ‘জেনি’। এতে নাম ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে তাকে। এর টিজারে দেখা গেছে, ঘরে-বাইরে কর্মজীবী নারীদের কতটা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়।

‘জেনি’ নাটকের দৃশ্যে তাসনিয়া ফারিণ (ছবি: সিনেমাওয়ালা)

আজ মে দিবসে সিনেমাওয়ালা ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পেয়েছে লাক্স নিবেদিত ‘জেনি’। এতে আরো অভিনয় করেছেন পার্থ শেখ, সমু চৌধুরী, শিমুল খান, এবি রোকন, আনাস খান, আরবিন, টুম্পা মাহবুব।

‘জেনি’র গল্প লিখেছেন ও পরিচালনা করেছেন মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ। চিত্রগ্রহণে ফুয়াদ বিন আলমগীর।

‘জেনি’ নাটকের দৃশ্যে তাসনিয়া ফারিণ ও পার্থ শেখ (ছবি: সিনেমাওয়ালা)

‘জেনি’ নাটকে ‘জানি তুই পারবি’ শিরোনামে একটি গান রয়েছে। তারিক তুহিনের কথামালায় এর সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন শাহরিয়ার আলম মার্সেল। তার সঙ্গে এটি গেয়েছেন আয়েশা মৌসুমী।

পড়া চালিয়ে যান

নাটক

অভিনেতা অলিউল হক রুমি মারা গেছেন

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

অলিউল হক রুমি (ছবি: ফেসবুক)

টেলিভিশন নাটকের অভিনেতা অলিউল হক রুমি আর নেই। আজ (২২ এপ্রিল) ভোরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন তিনি (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

হাসিখুশি অলিউল হক রুমির মৃত্যুতে নাটাঙ্গনে বিষাদের ছায়া। অভিনয়শিল্পী, প্রযোজক, পরিচালকসহ অনেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় শোক প্রকাশ করেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে ক্যানসারের সঙ্গে লড়ছিলেন অলিউল হক রুমি। চিকিৎসার জন্য ভারতের চেন্নাই গিয়েছিলেন। মাসখানেক ধরে দেশই চলছিলো চিকিৎসা। কিন্তু সুস্থ জীবনে আর ফেরা হলো না তার।

বরগুনায় জন্মগ্রহণ করেন অলিউল হক রুমি। তার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল হক ও মা হামিদা হক। পরিবারে তিন ভাই ও তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট তিনি।

অভিনয়ে তিন দশকেরও বেশি সময় কাটিয়েছেন অলিউল হক রুমি। অসংখ্য নাটক ও সিনেমায় দেখা গেছে তাকে। ১৯৮৮ সালে থিয়েটার বেইলি রোডের ‘এখনও ক্রীতদাস’ নাটকের মধ্য দিয়ে অভিনয়ে পথচলা শুরু করেন তিনি। একই বছর ‘কোন কাননের ফুল’ নাটকের মাধ্যমে ছোট পর্দায় অভিষেক হয় তার। ২০০৯ সালে ‘দরিয়াপাড়ের দৌলতি’ ছিলো তার অভিনীত প্রথম সিনেমা।

পড়া চালিয়ে যান

নাটক

ঈদ নাটকে মামুনুর রশীদের সঙ্গে চঞ্চলের ছেলে, দুইজনই স্কুলছাত্র!

সিনেমাওয়ালা রিপোর্টার

Published

on

নাট্যজন মামুনুর রশীদ ও অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী ছেলে শৈশব রোদ্দুর শুদ্ধ পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছেন। তাদের মধ্যে বয়সের ব্যবধান দাদা-নাতি পর্যায়ের। কিন্তু দুইজনই স্কুলছাত্রের পোশাকে ব্যাগ কাঁধে প্রস্তুত! ‘ইতি তোমার আমি’ নামের একটি সাত পর্বের ধারাবাহিক নাটকে দেখা যাবে অন্যরকম এই দৃশ্য।

মামুনুর রশীদ ও শুদ্ধ’র স্কুলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত এমন দুটি স্থিরচিত্র আজ (১৬ মার্চ) সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিয়েছেন চঞ্চল চৌধুরী। তিনি লিখেছেন, ‘দাদা-নাতি দুইজনই নাকি স্কুলে পড়ে! দাদা মামুনুর রশীদ, নাতি শৈশব রোদ্দুর শুদ্ধ। প্রবল বন্ধুত্ব দুইজনের।’

নাটকটি লিখেছেন বৃন্দাবন দাস। সেই তথ্য জানিয়ে চঞ্চল চৌধুরী লিখেছেন, ‘বৃন্দাবনদার লেখা নাটক দিয়ে টেলিভিশনে অভিনয় শুরু হলো শুদ্ধর। মামুন ভাইয়ের সঙ্গে প্রথম অভিনয়, এর চেয়ে বড় সৌভাগ্য ওর কী হতে পারে!’

শুদ্ধ এর আগে একটি নাটকের শুটিংয়ে বেড়াতে গিয়ে একটি দৃশ্যে অভিনয় করেছে। এবার পূর্ণাঙ্গ চরিত্রে অভিষেক হচ্ছে তার। মোট তিন দিন নাটকটির শুটিং করছে সে।

ভেঁপু ক্রিয়েশন্স লিমিটেডের প্রযোজনায় ‘ইতি তোমার আমি’ পরিচালনা করছেন এজাজ মুন্না। আসন্ন ঈদুল ফিতরে মাছরাঙা টেলিভিশনে প্রচার হবে সাত পর্বের এই নাটক।

৭৬ বছরে পা রাখলেও গত ২৯ ফেব্রুয়ারি ১৯তম জন্মদিন উদযাপন করেন মামুনুর রশীদ। অধিবর্ষের কারণে এমন ঘটনার সাক্ষী তিনি।

পড়া চালিয়ে যান

সিনেমাওয়ালা প্রচ্ছদ